প্রদীপ কুমার সিংহ, বারুইপুর; বারুইপুর থানার অদূরেই দুঃসাহসিক চুরির ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়াল এলাকায়। ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার বারুইপুর থানার অন্তর্গত জিএস বোস সরণীতে। নগদ ও সোনার গহনা সব মিলিয়ে প্রায় দুলক্ষ টাকার বেশী জিনিষ চুরি গিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়ে বারুইপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন বাড়ির মালিক অরিজিত চক্রবর্তী।

মাত্র দু মাস আগে ছেলেকে বিয়ে দিয়ে ছিল মা। মা মাসিরা সবাই দীঘায় বেড়াতে গিয়েছিল কয়েকদিন আগে। বাড়িতে ছিল ছেলে অরিজিৎ চক্রবর্তী ও বৌমা সানন্দা সাহা চক্রবর্তী। ছেলে একটি বেসরকারী কোম্পানীতে চাকরী করে। বৌমা কানাড়া ব্যাংক গড়িয়াহাট শাখাতে চাকরী করেন। সকালে অরিজিৎ বাবু ও সানন্দাদেবী বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান কর্মস্থলে। বাড়ি ফাঁকা থাকার সুযোগ নিয়েই দুষ্কৃতীরা ঘরের দরজার তালা ভেঙে ভিতরে ঢোকে। ঘরের ভিতরে আলমারি ভেঙে দামি ক্যামেরা, নগদ টাকা ও সোনার গহনা চুরি করে পালিয়ে যায় অভিযুক্তরা। সন্ধ্যার সময় সানন্দাদেবী বাড়ি ফিরে দেখেন ফ্লাটের দরজার তালা ভাঙ্গা। ঘরে ঢুকে দেখেন ঘরের জিনিসপত্র সব ছড়ানো, দুটো ঘরের দুটো আলমারির দরজা খোলা, আলমারির লকার গুলো সব খোলা। সঙ্গে সঙ্গে স্বামী অরিজিৎবাবুকে খবর দেন।

অরিজিৎবাবু আলমারিতে দেখেন সব গহনা, একটি ডিএসএলআর ক্যামেরা, শো কেসে দুটি হাত ঘড়ি, দুটি দামি কোম্পানির মোবাইল সব চুরি হয়। সেই সঙ্গে নগদ ১২০০০ টাকা চুরি যায়। প্রায় দুলক্ষ টাকার জিনিস চুরি হয়। এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। বারুইপুর থানা থেকে ঢিল ছোড়া দূরত্বে এই চুরির ঘটনায় আতঙ্কিত এলাকার সাধারণ মানুষ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here