সত্যজিৎ ব্যানার্জি, বারুইপুর; সোমবার পঞ্চায়েত ভোটের মনোনয়ন জমা দেবার শেষ দিন ছিল। এই মনোনয়ন জমা দেওয়াকে কেন্দ্র করে সকাল ১০ টার পর থেকেই উত্তাল হল বারুইপুর। বারুইপুর মহকুমা শাসকের দপ্তরে জেলা পরিষদ প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে এদিন মনোনয়ন জমা দেওয়ার কাজ চলছিল। এদিন মনোনয়ন জমা দেওয়া কে কেন্দ্র করে প্রচুর পুলিশ বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছিল। বারুইপুর এসডিপিও অর্ক ব্যানার্জি সহ বারুইপুর থানার আইসি অরূপ ভৌমিক, বারুইপুর পুলিশ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সৈকত ঘোষ সহ জেলা পুলিশের স্পেশাল অপারেশন গ্রুপের ওসি লক্ষ্মীকান্ত বিশ্বাসের নেতৃত্বে প্রচুর পুলিশ বাহিনী বারুইপুর পুলিশ জেলা সুপারের অফিসের সামনে ছিল। মোতায়েন ছিল র‍্যাফ। এক মহিলা প্রার্থীকে মারধোরের সময় পুলিশ গিয়ে বহিরাগতদের দিকে তেড়ে তাদের সরিয়ে দেয়। ঘটনার জেরে দফায় দফায় মহকুমা শাসকের দপ্তরের সামনে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।

বার বার রাস্তায় ভিড় করে অন্য প্রার্থীদের মারধোর শুরু করে। বহিরাহত যুবকরা জেলা পরিষদ প্রশিক্ষণ দপ্তরের অফিসের ভেতরে ঢুকে পড়লে জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সৈকত ঘোষের নেতৃত্বে বিশাল পুলিশ বাহিনী, র‍্যাফ বহিরাগত যুবকদের ছত্রখান করতে লাঠি উঁচিয়ে তেড়ে যায়। মৃদু লাঠি চার্জ করে বহিরাগতদের রাস্তা থেকে হঠিয়ে দেয়। এরপর এক চিত্র সাংবাদিক প্রদিপ কুমার সিংহ ঝামেলার ছবি তুলতে গেলে তাকে বহিরাগত যুবকের দল ঘিরে ধরে মোবাইল ভেঙে দেয়, মাটিতে ফেলে তাকে মারধোর করা হয়। আর এক সাংবাদিক সত্যজিৎ ব্যানার্জিকে ছবি তোলার জন্য হুমকি দেওয়া হয়।

আহত চিত্র সাংবাদিক প্রদিপ কুমার সিংহ

বারুইপুর জেলা পুলিশের স্পেশাল অপারেশন গ্রুপের ওসি লক্ষ্মীকান্ত বিশ্বাস সহ বারুইপুর থানার পুলিশ বহিরাগতদের ছত্রখান করেন। এর পর অভিযুক্ত বহিরাগত যুবক ভাঙড়ের বাসিন্দা সাবির আলিকে ধরতে গেলে জেলা পুলিশের স্পেশাল অপারেশন গ্রুপের ওসি লক্ষ্মীকান্ত বিশ্বাস ও বারুইপুর থানার এক কনস্টেবলকে মারধোর ও হেনস্তা করা হয়। ওসি লক্ষীকান্ত বিশ্বাসকে কিল, ঘুসি, নখ দিয়ে আঁচড় দেয় অভিযুক্ত যুবক ও এক কনস্টেবলের হাতে চোট লাগে। চোট নিয়েও অভিযুক্ত যুবক সাবির আলিকে হাতে নাতে ধরে ওসি লক্ষীকান্ত বিশ্বাস। ওসি লক্ষীকান্ত বিশ্বাস, কনস্টেবল ও ওই চিত্র সাংবাদিক প্রদিপ কুমার সিংহকে বারুইপুর মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পুলিশকে মারধোর, হেনস্তা, সাংবাদিক নিগ্রহ কাণ্ডে পুলিশ ৫ জনকে গ্রেপ্তার করেছে।

প্রহৃত জেলা পুলিশের স্পেশাল অপারেশন গ্রুপের ওসি লক্ষ্মীকান্ত বিশ্বাস

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here