সত্যজিৎ ব্যানার্জি, বারুইপুর; বাড়ি ফেরার পথে এক বছর ৪২ এর গৃহবধূকে রাস্তা থেকে চুলের মুঠি ধরে মুখে হাত চাপা দিয়ে রাস্তার পাশের জঙ্গলে টেনে নিয়ে গিয়ে শ্লীলতাহানির অভিযোগ উঠল জনা তিনেক দুষ্কৃতীর বিরুদ্ধে। অভিযোগ, গৃহবধুর কাপড় আর জামা ছিঁড়ে দেওয়া হয়। তাকে মেরে ফেলার হুমকিও দেওয়া হয়।

সন্ধ্যে ৭ টায় এই স্থানেই শ্লীলতাহানির ঘটনা ঘটে

গৃহবধূর আর্তনাদে স্থানীয় বাসিন্দারা ছুটে এসে পিছু ধাওয়া করলে এক জন ধরা পড়ে। তাকে উত্তেজিত বাসিন্দারা উত্তম-মধ্যম দেয়। পরে বারুইপুর থানার পুলিশ এলাকায় গিয়ে অভিযুক্ত যুবক মিরপুরের বাসিন্দা শাহাজামাল লস্করকে উত্তেজিত বাসিন্দাদের কাছ থেকে উদ্ধার করে বারুইপুর মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে আসে। তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

অভিযুক্ত যুবক মিরপুরের বাসিন্দা শাহাজামাল লস্কর

ঘটনাটি ঘটে রবিবার রাতে বারুইপুর থানার শঙ্কর পুর ২ নম্বর পঞ্চায়েতের কেশবপুর নস্কর পাড়ায় সূর্যপুর-ধামুয়া রোডে। অন্য দুষ্কৃতীদের সন্ধানে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ। ঘটনা প্রসঙ্গে ওই গৃহবধু জানায়, সূর্যপুরে মেয়ের বাড়ি থেকে রবিবার সন্ধে ৭ টায় ফিরছিলাম। রাস্তা নির্জন ছিল। তিন জন রাস্তায় উল্টো দিক থেকে এসে আমাকে আক্রমণ করে। চুলের মুঠি ধরে মুখে হাত চাপা দিয়ে ধরে রাস্তার পাশে জঙ্গলে নিয়ে যায়। আমার কাপড়, জামা ছিঁড়ে দেয়। আমি কোন ক্রমে মুখের উপর থেকে হাত সরিয়ে নিয়ে আর্তনাদ করে উঠলে স্থানীয় অটোচালক, টোটো চালকরা এসে আমাকে উদ্ধার করে। না হলে আমাকে মেরে ফেলে দিত। এমনকি মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে আমায় শ্লীলতাহানি করে। ঘটনায় আতঙ্কিত হয়ে পড়ি। ঘাড়ে, মুখে আঘাতের চিহ্ন আছে।

এদিকে এই ঘটনায় এলাকার বাসিন্দারা দোষীদের গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়েছেন। যে এলাকায় রাস্তার ধারে ঘটনা হয়েছে সেখানে পোস্টে কোন আলো ছিল না বলে বাসিন্দারা জানায়। এলাকার মহিলারা আতঙ্কিত বোধ করছে এই ঘটনায়। পুলিশের প্রাথমিক তদন্তে অনুমান, এক জন মদ্যপ অবস্থায় এই কাজ করেছে, তদন্ত চলছে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here