সত্যজিৎ ব্যানার্জি, বারুইপুর; ঘরের মধ্যে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার হল একাদশ শ্রেণীর ছাত্রের দেহ। মৃতের নাম প্রিয়ম হাজরা (১৭)। ঘটনাটি ঘটে বারুইপুরের ১২ নম্বর ওয়ার্ডে পদ্মপুকুর এলাকায় শুক্রবার রাতে। এর জেরে এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। তার মা এসে দেহ দেখে আর্তনাদ করলে প্রতিবেশীরা আত্মীয় পরিজন ছুটে আসেন। খবর দেওয়া হয় বারুইপুর থানায়। বারুইপুর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে দেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তে পাঠিয়েছে। এলাকায় শোকের ছায়া নেমেছে।

স্থানীয় ও পুলিশ সুত্রে খবর, বারুইপুরের পদ্মপুকুরের বাসিন্দা প্রিয়ম হাজরারা দুই ভাই। সে ছোট ছেলে ছিল। বাবা প্রশান্ত হাজরার এলাকায় সোনার দোকান। প্রিয়ম বারুইপুর সীতাকুন্ডু উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের একাদশ শ্রেণীর ছাত্র। দোতলা বাড়ি তাদের। এই প্রসঙ্গে তার পিসী কল্পনা দাস জানায়, প্রিয়ম বৃহস্পতিবার বারুইপুরের বুড়ো শিবতলাতে বন্ধুর বাড়িতে গিয়েছিল। তার পর আর বাড়ি ফেরেনি। শুক্রবার সন্ধ্যে ৮ টার পর বাড়ি ফেরে। ওর মা অসুস্থ ছিল বলে দোতলাতে মাকে ওষুধ দিয়ে আসে। এর পর ঠাকুরের পুজাও দেয়। ওর দাদা আর বাবা বাড়ীতে ছিল না। এর পর ৮-৩০ নাগাদ এক তলায় গিয়ে ফ্যানে কাপড় ঝুলিয়ে আত্মহত্যা করে। ওর বন্ধুদের মধ্যে কিছু হয়েছিল, কিছু চাপ দেওয়া হয়েছিল, যার জন্য এমন কাজ করলো। এলাকার বাসিন্দারা জানায়, প্রেম ঘটিত কারণও থাকতে পারে এই ঘটনায়। বারুইপুর থানার পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here