সত্যজিৎ ব্যানার্জি, বারুইপুর; মিসিং রেকর্ড উদ্ধার করা, আদালতে নথি পোড়ানোর শাস্তি, আড়াই হাজার কেসের ডেট পাওয়া যাচ্ছে না, ক্রস লিস্ট আপডেট করা, রেজিস্টার আপডেট করা, সমন নথির সাথে গাঁথার দাবি সহ এক গুচ্ছ দাবিতে বৃহস্পতিবার সকাল ১০-৩০ এর পর থেকে বারুইপুর মহকুমা আদালতের গেটের সামনে সিভিল ও ক্রিমিনাল কক্ষের আইনজীবীরা চেয়ার পেতে বসে বিক্ষোভ দেখান। পরে গেটে তালা ঝুলিয়ে দেওয়া হয়।

আইনজীবীদের এই বিক্ষোভের ফলে আদালতে নিয়ে আসা আসামীদের গেটে গাড়ি দাড় করিয়ে তাদের হাঁটিয়ে নিয়ে যেতে হয় পুলিশকে। কোন পুলিশের গাড়িকে ঢুকতে দেওয়া হয় না। আদালতে কাজ কর্ম বাধা প্রাপ্ত হয়। কার্যত অচলাবস্থা হয় বারুইপুরের সিভিল জজের জুনিয়র ডিভিসান এর ফার্স্ট কোর্ট, সেকেন্ড কোর্ট ও থার্ড কোর্টে। সিভিল আদালতের নথি পুড়িয়ে দেওয়ার পর থেকেই আদালত চত্বরে গত ৩রা ফেব্রুয়ারী থেকেই অচলাবস্থা চলছিল। জেলা দায়রা বিচারক রবীন্দ্রনাথ সামন্ত ও বারুইপুর আদালতের সন্দীপ সরকার, মিলন বিশ্বাসকে সাময়িক ভাবে বরখাস্তও করা হয়েছিল। বারুইপুর সিভিল আদালতের সদস্য আক্রামুল হক জানান, আমরা কোন সিজ অফ বা বয়কট করিনি। প্রতিবাদ জানাচ্ছি সিভিল ও ক্রিমিনাল আদালতের আইনজীবীরা একত্রে। মিসিং রেকর্ড উদ্ধারের দাবি, নথি পোড়ানোর শাস্তি, আড়াই হাজার কেসের ডেট পাওয়া যাচ্ছে না, সমন ধুলায় পড়ে আছে বিচার প্রার্থীরা হয়রান হচ্ছে, এই সব কারনেই অবস্থান বিক্ষোভ। যতদিন সমস্যা না মিটবে এই অবস্থান বিক্ষোভ চলবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here