বারুইপুরে সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ফের চিকিৎসায় গাফিলতিতে প্রসুতির মৃত্যুর অভিযোগ

0
854

সত্যজিৎ ব্যানার্জি, বারুইপুর; ফের বারুইপুর সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে চিকিৎসার গাফিলতিতে এক প্রসূতির মৃত্যুকে ঘিরে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ল মঙ্গলবার দুপুরে। পরিবারের লোকজন মৃতদেহ হাসপাতালের ভিতরে ঢুকিয়ে সুপারকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখাল। দাবি করা হল অবিলম্বে দোষী চিকিৎসককে গ্রেপ্তার করতে হবে। উত্তেজনা ছড়ালে বারুইপুর থানার পুলিস ঘটনাস্থলে যায়। মৃতার নাম মধুমিতা মণ্ডল (২৫)।
পরে সুপার বিষয়টিতে তদন্তের আশ্বাস দিলে শান্ত হয় তার পরিবারের লোকজন। পরিবারের তরফ থেকে মৃতার স্বামী উদ্দভ মণ্ডল বারুইপুর সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের সুপার জয়া ব্যানার্জি এর কাছে ও বারুইপুর থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন। এই ঘটনা প্রসঙ্গে জানা যায়, বারুইপুরের উত্তরভাগ বাজারের বাসিন্দা মধুমিতা মণ্ডল গত সোমবার বিকাল ৫টা নাগাদ প্রসব যন্ত্রণা নিয়ে ভর্তি হয় বারুইপুর সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে। সন্ধে ৮ -১০ মিনিটে সিজার করে একটি পুত্র সন্তান হয়।

এই প্রসঙ্গে মৃতার মামা শঙ্কর নস্কর জানায়, রাত ১১ টা নাগাদ জানানো হয় মধুমিতার অবস্থা খারাপ, রেফার করে কলকাতার চিত্তরঞ্জন হাসপাতালে নিয়ে যাবার কথা বলেন। চিকিৎসকরা রোগীর ব্লাড গ্রুপ পরীক্ষা না করে চিকিৎসা করেন, যার ফলে রোগীর রক্ত বেরোতে থাকে। এর পরে কলকাতার চিত্তরঞ্জন হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সকাল ৬ টায় মারা যায়।

মৃতার মামা সহ পরিবারের লোকজন জানায়, কেন রক্তের ব্যবস্থা করা হয়নি, কেন তা পরিবারকে আগে জানানো হয়নি? চিকিৎসকের গাফিলতির জেরে এই ঘটনা হয়। এটি তার দ্বিতীয় সন্তান হয়। সুপার জয়া ব্যানার্জি নিজে স্বীকার করেন, ব্লাড ব্যাঙ্কে রোগীর প্রয়োজনীয় বি নেগেটিভ রক্তের যোগান ছিল না। তবে তিনি জানান, তদন্ত করা হবে কমিটির মাধ্যমে। দোষী হলে উপযুক্ত বিচার হবে।

Leave a Reply