বারুইপুরে ৪ দিন ধরে গৃহবন্দী বৃদ্ধা, স্বামী রাস্তায়

0
1189
বারুইপুরের পঞ্চানন পাড়ায় গৃহবন্দী সুমিতা দে।

সত্যজিৎ ব্যানার্জি, বারুইপুর; প্রাক্তন স্বামীর সঙ্গে বাড়ি নিয়ে ঝামেলা। আর তাতেই ওই স্বামীর বাড়িতে ৪ দিন ধরে গৃহবন্দী ডিভোর্সী স্ত্রী। আর প্রাক্তন স্বামীর অবস্থাও খারাপ। তাঁর ডিভোর্সী স্ত্রী বাড়ির দখল না ছাড়ায়, ওই বৃদ্ধ স্বামীও রাস্তায় রাস্তায় ঘুরছেন। এমন কি নিজের বাড়ি থাকতেও, তাঁকে ভাড়া বাড়িতে আশ্রয় নিতে হয়েছে। বৃদ্ধ ও বৃদ্ধা দুজনেরই এই অসহায় অবস্থার মধ্যে দিন কাটছে। বারুইপুরের পঞ্চানন পাড়ায় এই নজীরবিহীন ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে।

ভাড়া বাড়িতে অসিত দে।

স্থানীয় মানুষ ও পুলিস সূত্রে জানা গেছে, পঞ্চানন পাড়ার বাসিন্দা অসিত দে। তিনি অবসরপ্রাপ্ত কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারি। তাঁর সঙ্গে প্রাক্তন স্ত্রী সুমিতাদেবীর দীর্ঘদিনের ঝামেলা। অবস্থা এমন জায়গায় গিয়ে দাঁড়িয়েছে, যে ঘরে তালাবন্দী হয়ে দিন কাটাচ্ছেন ওই বৃদ্ধা। পাড়ার লোকজন তাঁকে খাবার খেতে দিচ্ছেন। তিনি মরে গেলেও ওই বাড়ির দখল ছাড়বেন না বলে ঠিক করেছেন। সুমিতাদেবীর দাবি ওই বাড়ির শ্বাশুড়ির কাছ থেকে জোর করে লিখিয়ে নিয়েছিলেন অসিতবাবু। গত ৪ দিন হল পুলিস এসে বাড়িতে তালা লাগিয়ে দিয়ে গেছে। বাড়িতে ৬০ বছরের বৃদ্ধা সুমিতাদেবী বন্দী হয়ে রয়েছেন। তাদের এক মেয়ের বিয়ে হয়ে গিয়েছে। তাঁদের ছাড়াছাড়িও হয়ে গিয়েছে প্রায় ৮ বছর হল। কিন্তু পঞ্চানন পাড়ায় আড়াই কাঠা জায়গার ওপর দোতলা বাড়ি নিয়েই ওই বৃদ্ধ ও বৃদ্ধার মধ্যে যত গন্ডগোল। বৃদ্ধের অভিযোগ, তিনি অবসরের টাকা ও পৈত্রিক ভিটা বিক্রির টাকা দিয়ে পঞ্চাননপাড়ায় ওই বাড়ি তৈরি করেছিলেন। ওই বাড়ি তিনি এখন প্রমোটারের কাছে বিক্রি করতে চান।  কিন্তু প্রাক্তন স্ত্রী তাতে বাধ সাধছেন। তিনি ওই বাড়ির দখল কিছুতেই ছাড়ছেন না। বাধ্য হয়ে তিনি আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন। তাঁর দাবি আদালত তাঁর পক্ষেই রায় দিয়েছেন। তাই নিজের বাড়িতে ঢুকতে গিয়েছিলেন। কিন্তু প্রাক্তন স্ত্রী তাঁকে ঢুকতে দিচ্ছেন না। বাধ্য হয়ে তিনি ভাড়া বাড়িতে রয়েছেন। ৪ দিন আগে পুলিশ নিয়ে তিনি বাড়ির দখল নিতে যান। কিন্তু সুমিতাদেবী বাড়ি থেকে বের হতে চান নি। পুলিশ ওই বাড়িতে তালা ঝুলিয়ে দিয়েছে। এলাকার মানুষের অভিযোগ, মহিলা পুলিশ না নিয়েই সেদিন অসিতবাবুর বাড়িতে এসেছিল পুলিশ। সুমিতাদেবী বাইরে যেতে চান নি। পুলিশ তাঁকে জোর করতে সাহস করে নি। তাই বাইরে থেকে তালা দিয়ে চলে গেছে বলে তাঁদের অভিযোগ।

Leave a Reply