30 C
Baruipur, IN
Tuesday, September 26, 2017

বারুইপুর এক ঐতিহ্যশালী ও ঐতিহাসিক মহকুমা শহর, এই ভারত উপমহাদেশের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের দক্ষিন ২৪ পরগনা জেলায় অবস্থিত। ভৌগলিক অবস্থানের দিক থেকে বারুইপুর 22.35° অক্ষাংশ এবং 88.44° দ্রাঘিমাংশে অবস্থিত। নৃতত্ব, ভূতত্ব, পুরাতত্ব, প্রত্নতত্ব, লোকসংস্কৃতি প্রভৃতির উর্বর ক্ষেত্র রূপে বারুইপুর অত্যন্ত সমৃদ্ধ অঞ্চল।আদিগঙ্গা বিধৌত এই ভুখন্ড নানা কারণে গৌরবমন্ডিত। মহাপ্রভু শ্রীচৈতন্যদেবের পাদস্পর্শে ধন্য এ শহর।

এছাড়াও দ্বারকানাথ ঠাকুর, বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়, মাইকেল মধুসূদন দত্ত, ঋষি অরবিন্দ, মতান্তরে স্বামী বিবেকানন্দ, বিপিনচন্দ্র পাল, রাষ্ট্রগুরু সুরেন্দ্রনাথ বন্দোপাধ্যায়, সুভাষচন্দ্র বসু, শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়, আচার্য বিনোবা ভাবে, পদ্মজা নাইডু, মাদার টেরিজা প্রমুখ মহাপুরুষ ও মহানারীর স্মৃতি বিজড়িত এই শহর বারুইপুর। এখানে দুর্গাদাস বন্দোপাধ্যায়, রেভারেন্ড কৃষ্ণমোহন বন্দোপাধ্যায়, ভুবনচন্দ্র মুখোপাধ্যায়, সৌরীন্দ্রমোহন চট্টোপাধ্যায়, সজল রায়চৌধুরী, অমরকৃষ্ণ চক্রবর্তী প্রমুখ বরেণ্য ব্যক্তিবর্গ জন্মগ্রহণ করেন। আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব এম. এন. রায়, সাতকড়ি বন্দোপাধ্যায় ও পরবর্তীকালে নোবেলজয়ী সাহিত্যিক গুন্টারগ্রাসের মত অনেক বিখ্যাত মানুষ এখানে স্বল্পদিন হলেও বাস করেছেন। সেই স্মৃতি বারুইপুরবাসীর মনে আজও অমলিন। জমিদার রাজবল্লভ রায়চৌধুরী সপরিবারে রাজপুর থেকে এখানে এসে বসবাস করেন ও গড়ে তোলেন বিভিন্ন সমাজ।

বারুইপুর নামের উৎপত্তি বারুই থেকে। এখানকার আদি পান ব্যবসায়ী “বারুই” সম্প্রদায়ের নাম অনুসারে এ অঞ্চলের নাম হয়েছিল ‘বারুইপুর’। তবে কবে যে তারা এখানে প্রথম বসবাস শুরু করেছিল তার হদিস কে দেবে? মধ্যযুগে পঞ্চদশ শতকের শেষভাগে কবি বিপ্রদাস পিপলাই রচিত ‘মনসামঙ্গল’ কাব্যে চাঁদসদাগরের আদিগঙ্গার স্র্রোত ধরে বানিজ্য যাত্রার প্রসঙ্গে বারুইপুরের উল্লেখ্য আছে “বাহিল বারুইপুর মহাকোলাহলে”। তখন বাংলার সুলতান ছিলেন হূসেন শাহ, অতএব পাঁচশ বছর পূর্বেই বারুইপুরের নামকরণ হয়ে গিয়েছে, একথা বলা যায়।

স্বাধীনতা ও জাতীয়তাবাদী আন্দোলন, পুরাতত্ব, স্থাপত্য, ভাস্কর্য, কৃষি, শিল্প, সাহিত্য, সংস্কৃতি, বানিজ্য, লৌকিক দেবদেবী, কুটিরশিল্প প্রভৃতি বিষয়ে বারুইপুর একটি গুরুত্বপূর্ণ স্থান দখল করে আছে। এখানকার সঙ্গীত, নাটক, যাত্রাপালা, যোগাযোগ ব্যবস্থা, ক্রীড়া, স্বাস্থ্যকেন্দ্র, মন্দির-মসজিদ-গীর্জা, জলপথ ও জলাশয়, শশ্মান, হাট-বাজার, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, পূজা-পার্বন-মেলা, পত্র-পত্রিকা, ফুল ও ফল অনন্য সম্পদ হিসাবে সমাদৃত।

বারুইপুরের পেয়ারা, লিচু প্রভৃতি ফল বিখ্যাত। দুর্লভ লকেট ফল আজও বারুইপুরে কিছু বাগানে ফলে থাকে। বারুইপুরে তৈরী সার্জিক্যাল ইনস্ট্রুমেন্ট সারা পৃথিবীতে রপ্তানি হয়। এছাড়া এখানকার দড়ি তৈরী শিল্প, করমচা থেকে চেরি শিল্প, বাঁশ শিল্প, ধূপকাঠি শিল্প, বাজিশিল্প ইত্যাদির যথেষ্ট খ্যাতি রয়েছে।

এখানে সারাবছর ধরে চলে বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, মেলা, ক্রীড়া প্রতিযোগিতা। বারুইপুর রাসমাঠের রথের মেলা, রাসের মেলা, চড়কের মেলা, কৃষি মেলা প্রভৃতি বিখ্যাত। এছাড়া নিউ ইন্ডিয়ান মাঠ, রাসমাঠ, বিশালাক্ষী মাঠ, ফুলতলা মাঠ ও সাগর সংঘ মাঠের বিভিন্ন ক্লাবের খেলোয়াড়রা জাতীয় স্তরের ক্রীড়া ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য ভুমিকা নিয়েছে। অনেক বিখ্যাত অভিনেতা/অভিনেত্রী যেমন রেবা রায়চৌধুরী, সজল রায়চৌধুরী, অনিল ঘোষ বারুইপুরে জন্মগ্রহণ করেছেন। এখানকার অনেক কবি এবং লেখক যেমন সন্তোষ কুমার দত্ত, শীতাংশুদেব চট্টোপাধ্যায়, ড. পূর্ণেন্দু ভৌমিক, ড. উত্তম দাশ, পরেশ মন্ডল, মৃত্যুঞ্জয় সেন, ড: শংকর প্রসাদ নস্কর, নির্মল ব্যানার্জী, সুশান্ত চক্রবর্তী, শান্তিকুমার বন্দোপাধ্যায়, ড. সনৎ কুমার নস্কর, জয়কৃষ্ণ কয়াল, অনিল ঘোষ, রত্নাংশু বর্গী, স্বপ্না গঙ্গোপাধ্যায়, নরনারায়ণ পুততুন্ড, মনোরঞ্জন পুরকাইত, আনসার উল হক, জয়দীপ চক্রবর্তী, সুনীল দাশ, রঞ্জন দত্ত রায়, প্রসুন মজুমদার, রথীন দেব, নরেন্দ্রনাথ দাশগুপ্ত, নিত্যানন্দ রায় ও ইতিহাস-পুরাতত্ব, প্রত্নতত্ব আর লোকসংস্কৃতির বিষয়ে গবেষণাধর্মী প্রাবন্ধিকদের মধ্যে অমরকৃষ্ণ চক্রবর্তী, ডা: সুশীল ভট্টাচার্য, হেমেন মজুমদার, কৃষ্ণকালী মন্ডল, পূর্ণেন্দু ঘোষ, ড. কালিচরণ কর্মকার, ড. দেবব্রত নস্কর, সাগর চট্টোপাধ্যায়, ড. ইন্দ্রজিৎ সরকার, ড. ইন্দ্রানী ঘোষাল প্রমুখের নাম উল্ল্যেখযোগ্য। কবি শুভ্র বন্দোপাধ্যায়, যিনি ২০১৩ সালে সাহিত্য একাডেমী পুরস্কার পান, এই বারুইপুরেই বাস করতেন।

বারুইপুরে বেশ কিছু দ্রষ্টব্যস্থল রয়েছে, যেগুলির ঐতিহাসিক মূল্য অনস্বীকার্য। উত্তরভাগের জল পাম্পিং স্টেশন, রামনগরের কৈলাশ ভবন, চিত্রশালী শিব মন্দির, পিয়ালী টাউনের ফায়ার ব্রিগেড অফিস, সাউথ গড়িয়ায় দুর্গাদাস ব্যানার্জীদের প্রাসাদোপম অট্টালিকা, নড়িদানার ধর্মমন্দির, শিখরবালির শীতলা মন্দির, সীতাকুন্ডুর দেওয়ান গাজীর মাজার, সীতা মায়ের মন্দির, বেগমপুর ও শূলিপোতার আর্সেনিক মুক্ত বিশুদ্ধ জল প্রকল্প, কৃষ্ণমোহন স্টেশন সংলগ্ন ভূতবাবার মন্দির, মল্লিকপুরের গণিমা, জগাতিঘাটা, ধপধপির দক্ষিন রায়ের মন্দির, কল্যাণপুরের কল্যাণ মাধবের মন্দির, বারুইপুর পুরাতন বাজার সংলগ্ন বিশালাক্ষী মন্দির ও অনন্ত আচার্যের গৃহ (মহাপ্রভুতলা), কাছারী বাজার সংলগ্ন বিশালাক্ষী মন্দির, বারুইপুরের দোল মঞ্চ, রাজবল্লভ ভবন, রবীন্দ্র ভবন, জামে মসজিদ, কোষাঘাটা, সদাব্রতঘাট, কীর্তনখোলা মহাশশ্মান, মহকুমা পোস্ট অফিস, মহকুমা হাসপাতাল, আদালত, জেলা ক্রীড়া ভবন, সেন্ট্ পিটার্স গীর্জা, পিয়ালী টাউনের বিডিও অফিস, বারুইপুর শহরের এস.ডি.ও. অফিস, শাসনের মধুশিল্প কেন্দ্র, পুরন্দরপুরের জোড়া শিব মন্দির, বারুইপুরে দূর্গাদালান(বড়কুঠি), বারুইপুর উচ্চ বিদ্যালয়, মদারাট পপুলার একাডেমী, রাসমনি বালিকা বিদ্যালয়, পুরন্দরপুরের বারুইপুর কলেজ, চাম্পাহাটী সুশীলকর কলেজ, পিয়ালী টাউন সংলগ্ন গ্রেটার ক্যালকাটা ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ, সুবুদ্ধিপুরের “বাবাসাহেব আম্বেদকর বি. এড. কলেজ” ইত্যাদি দ্রষ্টব্য স্থলগুলির মধ্যে অন্যতম।

Baruipur, IN
haze
30 ° C
30 °
30 °
84%
2.1kmh
40%
Wed
34 °
Thu
31 °
Fri
25 °
Sat
29 °
Sun
30 °
- Advertisement -

Stay Connected

18,593FansLike
38FollowersFollow
835FollowersFollow
69FollowersFollow
86SubscribersSubscribe

City Map

City Summery

Coordinates:22.35°N 88.44°E
CountryIndia
StateWest Bengal
DistrictSouth 24 Parganas
Elevation9 m (30 ft)
Official LanguagesBengali, Hindi, English
Time zoneIST (UTC+5:30)
Lok Sabha constituencyJadavpur
Vidhan Sabha constituencyBaruipur Paschim, Baruipur Purba
Population75,558 (Census 2011)
Area212.48 Sq. Km.
No. of Properties
No. of Wards17
Length of Roads
Total Water Supply
Per Capita Water Supply
Summer Temp.35°C - 42°C
Winter Temp.8°C - 32°C
Websitewww.baruipur.in

Festivals of Baruipur

- Advertisement -
X